করোনা প্রতিরোধে কোন মাস্ক সবচেয়ে ভালো?

বিজ্ঞাপন

করোনা প্রাদুর্ভাব শুরুর পর থেকে বিশেষজ্ঞরা জোর দিচ্ছেন মাস্ক ব্যবহারের প্রতি। করোনার প্রতিরোধক হিশেবে গত সাত মাসে মাস্কের ব্যববার বেড়েছে কয়েকগুণ। আর মাস্কের এমন চাহিদা বাড়ায় কেউ কেউ ব্যবসায়িক মুনাফা লাভের আশায় বাজারে ছেড়েছে নিম্নমানের মাস্ক। ফলে আসলেই কোন মাস্কটি করোনার সফল প্রতিরোধক হিশেবে কাজ করবে তা নিয়ে ইতোমধ্যেই গবেষণা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা শুরু থেকেই সার্জিকাল মাস্ককে করোনারোধী হিসেবে ব্যবহারের মতামত দিয়েছে। পরবর্তী জানানো হয়েছে যথাযথ ব্যবহার না করলে এন৯৫ মাস্ক পরে বাড়তে পারে বিপদের শঙ্কা।

এবার অস্ট্রেলিয়ার একদল বিজ্ঞানীর দাবি করেছেন, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে বাড়িতে তৈরি সুতির মাস্কই সবচেয়ে বেশি কার্যকর। থোরাক্স সায়েন্স জার্নালে এই গবেষণার রিপোর্ট সামনে আসে।

সম্প্রতি বিজ্ঞানীরা এক স্তরীয় এবং দ্বিস্তরীয় মাস্কের একটি তুলনামূলক পরীক্ষা করেন। একটি এলইডি আলো এবং ভিডিও ক্যামেরার মাধ্যমে পরীক্ষা করা হয়। ওই পরীক্ষায় দেখা যায়, কথা বলার সময় খুব সহজেই থুতু আটকাতে সক্ষম সুতির এক স্তরীয় মাস্ক। তবে হাঁচি, কাশির ক্ষেত্রে দ্বিস্তরীয় মাস্ক ব্যবহারই প্রয়োজন।

বিজ্ঞানীদের দাবি, সবসময় ত্রিস্তরীয় মাস্কই সবচেয়ে বেশি প্রয়োজনীয়। তবে গবেষণার পর তাদের একটাই দাবি, বাড়িতে তৈরি সুতির মাস্কের চেয়ে আর কোনও মাস্কই ভাইরাস আটকাতে বেশি সক্ষম নয়। বিজ্ঞানীদের দাবি, নাক ও মুখ সুতির মাস্কে ঢাকা থাকলে কোনও ভাইরাসই শরীরে প্রবেশের সুযোগ পাবে না।

তারা আরো জানান, বাড়িতে তৈরি সুতির মাস্ক খুব সহজেই ধুয়ে পরিষ্কার করে নেওয়া যায়। এর ফলে ভাইরাস দীর্ঘক্ষণ মাস্কে থেকে যাওয়ার সম্ভাবনা কম। তাই তাদের দাবি, ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি কমাতে বাড়িতে তৈরি সুতির মাস্কের কোনও বিকল্প নেই।

সূত্র: সিএনবিসি

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status