কুলাউড়ায় খাসিয়া পুঞ্জিতে হুমকি দিয়ে ৮’শ পান গাছ কর্তন

বিজ্ঞাপন

সাজু মারছিয়াং, নিজস্ব প্রতিবেদক: মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল ইউনিয়নের সিঙ্গুর পুঞ্জিতে হুমকি দিয়ে আটশ’র অধিক পান গাছ কর্তনের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় খাসিয়াদের পক্ষ থেকে জড়িত দুইজনকে আসামী করে কুলাউড়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কুলাউড়া থানা পুলিশকে অবগত করেছেন পুঞ্জির বাসিন্দারা।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত মঙ্গলবার (৪আগষ্ট) সন্ধ্যায় বরমচাল ইউনিয়নের পশ্চিম সিঙ্গুর গ্রিজিং এলাকার বাসিন্দা ছমির আলীর ছেলে ফখরুল আলী সিঙ্গুর পুঞ্জির বাসিন্দা জেসপাল পতামের পান জুম থেকে ২৫০ টি সুপারি গাছের চারা চুরি করে।

এসময় খাসিয়া পুঞ্জির বাসিন্দা জেসপাল পতামসহ খাসি লোকজন তাকে হাতেনাতে ধরে পুঞ্জিতে নিয়ে আসেন। তখন সিঙ্গুর পুঞ্জি ও ফখরুল আলী এলাকার লোকজনদের নিয়ে বিষয়টি সমাধানের জন্য একটি সালিশি বৈঠক হয়।

ছবি: সংবাদ২৪

বৈঠকে ভবিষ্যতে এ ধরণের চুরির কাজ না করার শর্তে মুচলেকা দেন ফখরুল আলী। স্থানীয় বাসিন্দা রুহেল মিয়া, জাহেদ আলী, নানু মিয়া, ইসলাম উদ্দিন ও ফজল মিয়াসহ তার পরিবারের জিম্মায় তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এরপর ফখরুল ক্ষোভে পুঞ্জির বাসিন্দাদের হুমকি প্রদান করে বলে মুচলেকা একবার কেন শতবার দিলেও তোমরা আমার কিছু করতে পারবে না, তোমাদের পুঞ্জিতে ক্ষতিসাধন করবো বলে হুমকি প্রদান করে।

মঙ্গলবার রাত ২টা পর্যন্ত পুঞ্জির লোকজন ফখরুলের ভয়ে পানের জুম রক্ষায় পাহাড়া দেন। একপর্যায়ে তারা পুঞ্জিতে ফিরে গেলে রাতের আধারে এলাকার চিহ্নিত চোর ফখরুল তার লোকজনদের নিয়ে পুঞ্জির বাসিন্দা ডালিম খংষ্টিয়ার পানের জুম থেকে প্রায় ২৫০-৩৫০, লিপটন মারাকের পানের জুম থেকে ২০০-২৫০ পান, আগর, সুপারি গাছ, স্থানীয় বাঙ্গালী তৈয়ব মিয়ার পানের জুম থেকে প্রায় ২০০ পান গাছ কর্তন করে পানের জুমে ক্ষতিসাধন করে বলে জানান আদিবাসীরা।

এ ঘটনায় কুলাউড়া থানার এসআই রফিকুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ছবি: সংবাদ২৪

বুধবার(৫ আগষ্ট) বিকেলে সিঙ্গুর পুঞ্জিতে গেলে পান কর্তনের তান্ডবলীলার চিত্র দেখা যায়। এসময় সিঙ্গুর পুঞ্জির মান্ত্রী (পুঞ্জি প্রধান ) বিনেত মানার বলেন, আমাদের পুঞ্জিতে ৫০-৬০টি খাসিয়া পরিবারের বসবাস রয়েছে। সবাই পান চাষ করে জীবিকা নির্বাহ করে। মঙ্গলবার রাতের আধারে স্থানীয় বাসিন্দা এলাকার চিহ্নিত চোর ফখরুলসহ তার সহযোগীরা মিলে আমাদের পুঞ্জিতে পান গাছসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কর্তনের তান্ডব চালায়। এতে আমাদের প্রায় ৫ লক্ষ টাকার ক্ষতিসাধন হয়। প্রায় সময় আমাদের পানের জুমে পান গাছ বিনষ্ট করতে মরিয়া হয়ে উঠে স্থানীয় একটি বিশেষ মহল। আমরা এ থেকে পরিত্রাণ চাই, ন্যায় বিচার চাই। এ বিষয়ে পুঞ্জির বাসিন্দা ডালিম খংষ্টিয়া বাদী হয়ে জড়িত দুইজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন।

আন্তঃপুঞ্জি উন্নয়ন সংগঠন (কুবরাজ)এর সাধারণ সম্পাদক আদিবাসী নেত্রী ফ্লোরা বাবলী তালাং বলেন, শুধু সিঙ্গুর পুঞ্জি নয় কুলাউড়ার বিভিন্ন পুঞ্জিতে আদিবাসীদের পানের জুম থেকে পান গাছসহ বিভিন্ন প্রজাতির চারা গাছ কর্তন করে দুর্বত্তরা। যার কারণে খাসি পান চাষিরা বেশ আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হন। পান চাষ করেই খাসিরা তাদের জীবিকা নির্বাহ করেন। কিন্তু আমরা সবসময় আতঙ্কের মধ্যে থাকি। বিষয়টি প্রশাসনের কাছে একাধিকবার জানিয়েছি।

এ ব্যাপারে কুলাউড়া থানার এস আই রফিকুল ইসলাম বলেন, সরেজমিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পানের জুম থেকে পান গাছসহ বিভিন্ন প্রজাতির গাছ কাটার সত্যতা পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে থানায় মামলা হয়েছে। এখন তদন্তক্রমে জড়িতদের বিরুদ্বে প্রয়োজনীয় আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status