কোরানে হাফেজের ধর্ষণের শিকার ৯ বছরের শিশু

বিজ্ঞাপন

নাটোরে একটি মাদ্রাসার কোরানে হাফেজের হাতে ৯ বছরের শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ পারভেজ নামের ওই হাফেজকে আটক করেছে।

বুধবার (১৩ মে) সকাল সাড়ে আটটার দিকে নাটোর সদরের সিংগারদহ এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। আটক পারভেজ একই এলাকার ইউসুফ আলীর ছেলে।

নাটোর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবুল হাসনাত জানান, নাটোর শহরের কান্দিভিটা অবস্থিত হাফিজিয়া মাদ্রাসা তেইশ পারা কোরআনের হাফেজ পারভেজ। করোনাভাইরাস এর কারণে মাদ্রাসা বন্ধ থাকায় পারভেজ রমজান মাসে তার গ্রামের বাড়িতে শিশুদের কোরআন শিক্ষা দেয়া শুরু করে। গতকাল কোরআন শিক্ষা দেয়ার পরে সকল শিশুকে ছুটি দিয়ে দেয়। এরপরে সে ওই শিশুটিকে আরও পড়াবে বলে রেখে দেয়।

সকল শিশু চলে গেলে পারভেজ ওই শিশুটিকে ধর্ষণ করে। এতে শিশুটি চিৎকার শুরু করলে লোকজন ছুটে আসলে পারভেজ পালিয়ে যায়। শিশুটির বাবা-মা শিশুটিকে রক্তাক্ত জখম অবস্থায় নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতাল ভর্তি করে।

পরে খবর পেয়ে পুলিশ বেলা এগারোটার দিকে তাকে ওই এলাকার মাঠ থেকে পারভেজকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।

নাটোর আধুনিক সদর হাসপাতালে আবাসিক মেডিকেল অফিসার মাহবুবুর রহমান জানিয়েছেন অনেক রক্তক্ষরণ হওয়ায় শিশুটির অবস্থা খুবই গুরুতর।

সংবাদ২৪/নাটোর/সুরজিত/এমসি

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status