চীন-রাশিয়ার ভ্যাকসিন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সন্দেহ

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাসের টিকা আবিষ্কারের একেবারে শেষ প্রান্তে বলে জানিয়েছে চীন-রাশিয়া। তবে তারা টিকা আবিষ্কার করলেও সেই টিকা যুক্তরাষ্ট্র ব্যবহার করবে না বলে জানিয়েছেন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশিয়াস ডিজিজের ডিরেক্টর, সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ও হোয়াইট হাউসের প্রধান স্বাস্থ্য উপদেষ্টা অ্যান্টনি ফাউসি।

চীন-রাশিয়ার টিকা তৈরির দাবি নিয়েও সন্দেহ প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

যুক্তরাষ্ট্রের আশঙ্কা, চীন বা রাশিয়া টিকা বানালে তা মানবদেহের পক্ষে নিরাপদ নাও হতে পারে। তাই যুক্তরাষ্ট্রের সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, চীনা বা রাশিয়ান টিকা তাদের দেশে ব্যবহার না করাই ভাল।

শুক্রবার মার্কিন কংগ্রেসে ফাউসি বলেন, ‘অন্যান্য দেশের তৈরি করা প্রতিষেধক ব্যবহার করা ঠিক হবে না। কারণ সেসব দেশে পাশ্চাত্যের মতো কড়া বিধিনিষেধ নেই। কোনো পরীক্ষার আগেই যদি কেউ বলে, টিকা তৈরি হয়ে গিয়েছে, তাতে সমস্যাই সৃষ্টি হবে।’

তিনি বলেন, ‘টিকা ট্রায়ালে হুড়োহুড়ি করছে রাশিয়া ও চীন। আমি আশা করব তারা প্রিক্লিনিকাল ট্রায়াল ও সেফটি ট্রায়ালে নিশ্চিত হয়েই মানুষের শরীরে টিকা দিচ্ছে। বিশ্বের বাজারে টিকা আনার আগে তা মানুষের জন্য কতটা নিরাপদ ও সুরক্ষিত হবে সেটা আগে যাচাই করা দরকার।’

সারা বিশ্বই এখন করোনার টিকার জন্য অপেক্ষা করছে। চীনের কয়েকটি সংস্থা জানিয়েছে, অল্পদিনের মধ্যে তৈরি হয়ে যাবে প্রতিষেধক। রাশিয়া নির্দিষ্ট করে জানিয়েছে, সেপ্টেম্বরেই তারা বাজারে প্রতিষেধক আনতে পারবে।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, রবিবার সকাল পর্যন্ত সারা বিশ্বে করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে এক কোটি ৮০ লাখ ১১ হাজার ৮৪৫ জনে। মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬ লাখ ৮৮ হাজার ৬৮৩ জন। সুস্থ হয়েছেন এক কোটি ১৩ লাখ ২৬ হাজার ২৩২ জন।


সংবাদ২৪/এসডি

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status