ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করলেন মাদরাসা শিক্ষক

বিজ্ঞাপন

যশোরের শার্শা উপজেলায় আব্দুল গফুর (৪৫) নামে মাদরাসার এক সহকারী সুপারের বিরুদ্ধে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীর (১৪) শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত শিক্ষক পলাতক রয়েছেন।

বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক (এসআই) আনোয়ারুল আজিম জানান, ওই শিক্ষার্থী অভিযোগ করেছেন বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) গোপালপুর ইছাপুর আমিনিয়া দাখিল মাদরাসার সহকারী সুপার আব্দুল গফুর মাদরাসা কক্ষে এই ঘটনা ঘটান।

অভিযুক্ত শিক্ষক বেনাপোল পোর্ট থানার পুটখালি ইউনিয়নের বালুন্ডা গ্রামের মৃত বাকাতুল্লা ভোগার ছেলে।

ইছাপুর গ্রামের লোকজন জানিয়েছেন ওই মাদাসার চারজন শিক্ষক রয়েছেন যাদের চরিত্র খুবই খারাপ। এদের ভয়ে অনেক মেয়ে মাদরাসায় যেতে চায় না। এর আগেও আব্দুল গফুর বেশ কয়েকবার এমন ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

এদিকে গ্রামের একটি প্রভাবশালী মহল ঘটনাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেস্টা চালাচ্ছে বলে এলাকারর লোকজন অভিযোগ করেছেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম বলেন, করোনায় মাদরাসা বন্ধ কিন্তু অফিস খোলা থাকায় ওই শিক্ষার্থীকে ফুসলিয়ে কক্ষে নিয়ে আব্দুল গফুর জোর করে তার শ্লীলতাহানি করে। পরে মেয়েটি কাঁদতে কাঁদতে বাড়িতে এসে বাবা-মায়ের কাছে ঘটনাটি খুলে বলে। এরপর মেয়ের বাবা ও গ্রামের স্থানীয় লোকজন মাদরাসায় খোঁজ নিতে গেলে অভিযুক্ত গফুর পালিয়ে যায়। এলাকাবাসীর কাছ থেকে ঘটনাটি শোনার পর বিষয়টি শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল বলেন, স্থানীয়দের কাছ থেকে ঘটনাটি শোনার পরপরই বিষয়টি তদন্ত করার জন্য শার্শা থানার ওসিকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুল আলম বলেন, শুক্রবার (১৭ জুলাই) এ ব্যাপারে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের ৯/৪(খ) ধারায় একটি মামলা হয়েছে। মামলাটি করেছেন ওই ছাত্রীর বাবা। অভিযুক্তকে আটকের জন্য অভিযান চলছে।

শনিবার (১৮ জুলাই) মাদরাসার সুপার মাওলানা আজহার আলি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মাদরাসা পচিালনার কোন কমিটি নেই। অ্যাডহক কমিটির জন্য আবেদন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে ইউএনও ও শিক্ষা কর্মকর্তার নির্দেশে আব্দুল গফুরের কাছে কারণ দর্শানো নোটিশ দেয়া হয়েছে। তিনদিনের মধ্যে জবাব দেয়ার কথা বলা হয়েছে। জবাব পাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status