তারা টাকা দিয়ে ফলোয়ার কিনে নেন!

বিজ্ঞাপন

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তারকাদের লাখ লাখ ফ্যান ফলোয়ার। তবে তার সবটাই কি আসল? নাকি আসলের ভিড়ে নকলের সমাহার?

নিজেকে জনপ্রিয় সাজাতে তারকাদের ফেক ফলোয়ারের কথাটা বিনোদন ইন্ডাস্ট্রির ওপেন সিক্রেট।

সম্প্রতি ভারতের মুম্বাই পুলিশের একটি তদন্তে জানা গিয়েছে, বলিউডের বেশ কিছু তারকা নকল ভক্ত-সংখ্যা দিয়ে নিজেদের স্বার্থসিদ্ধি করছেন। কেউ ভিডিওর লাইক বাড়াচ্ছেন, কারও এনডর্সমেন্টে লাভের অঙ্ক বাড়ছে।

এ প্রসঙ্গে ভারতীয় গায়ক বাদশাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দেশটির পুলিশ। বাদশার বিরুদ্ধে অভিযোগ, ৭২ লাখ টাকা দিয়ে নকল ফলোয়ারের মাধ্যমে নিজের মিউজক ভিডিওয়ের ‘ভিউজ’ বাড়িয়েছেন তিনি।

মুম্বাই পুলিশ জানিয়েছে, বাদশা এ অভিযোগ স্বীকারও করে নিয়েছেন। পুলিশ সূত্রে খবর, ফেক ফলোয়ারের মাধ্যমে নিজেদের জনপ্রিয়তা বজায় রাখার কাণ্ডে নাকি প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এবং দীপিকা পাড়ুকোনের মতো অভিনেত্রীর নামও রয়েছে।

জানা গেছে, ইনস্টাগ্রামে প্রিয়াঙ্কার ফলোয়ারের সংখ্যা ছ’কোটির কাছাকাছি। দীপিকার পাঁচ কোটির সামান্য বেশি। কিছু দিন আগে ইনস্টাগ্রামের প্রভাবশালী তারকার তালিকায় প্রিয়াঙ্কা ভারতীয়দের মধ্যে শীর্ষে ছিলেন।

এই ফলোয়ারের সংখ্যার কারণেই মূলত তারকাদের ছবি বা ভিডিওতে লাইক বেশি হয়, যার প্রভাব সরাসরি পড়ে এঁদের ব্র্যান্ড এনডর্সমেন্টের উপরে। শুধু ইনস্টাগ্রাম নয়, টুইটার এবং ফেসবুকের ভক্তসংখ্যাও সন্দেহের বাইরে নয়।

অনেক তারকা আছেন যারা নিজেরাই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অ্যাকাউন্ট সামলান। অনেকে সংস্থা মারফত কাজ করান। তবে নিজে পোস্ট করলেও প্রায় সকলেরই সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার রয়েছে। তেমনই কিছু এজেন্সিও রয়েছে, যারা নকল প্রোফাইল তৈরি করে এবং তা এমন ভাবে চালায়, যে চট করে বোঝা মুশকিল সেটি আসল না নকল।

টাকার বিনিময়ে তারকারা এই সব ফেক প্রোফাইল কেনেন এবং নিজেদের সুবিধার্থে ব্যবহার করেন বলে শোনা যায়।

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status