ধর্ষণে সহায়তা করায় যুব মহিলা লীগ নেত্রী বহিষ্কার

বিজ্ঞাপন

ধর্ষণে সহায়তায় মামলার আসামী হওয়ায় ও সংগঠন বিরোধী কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক আবিদা সুলতানা লাকিকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে।

শুক্রবার (১৭ জুলাই) রাতে পঞ্চগড় জেলা মহিলা লীগের সভাপতি নিলুফার ইয়াসমিন ও সাধারণ সম্পাদক মালেকা ইয়াসমিন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানান।

জানা গেছে, জেলা শহরের চৌরঙ্গী মোড়ে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংগঠনের সভাপতি নিলুফা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় জেলা কমিটির অধিকাংশ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় এক নারী মডেল গণধর্ষণের ঘটনায় লাকির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের ও গ্রেপ্তারের বিষয়টি আলোচনা হয়। সভায় উপস্থিত সকলে লাকিকে সংগঠন থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কারের সিদ্ধান্তে একমত হন। পরে সংগঠনের প্যাডে তাকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত সংবাদকর্মীদের জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, গত ১৬ জুলাই আপনার বিরুদ্ধে বোদা থানায় একটি মামলা করা হয়েছে। এজন্য সংগঠন বিরোধী ও অনৈতিক কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে আপনাকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হলো।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) উপজেলায় ২৮ বছর বয়সী এক নারীকে মডেলকে ধর্ষণের মামলায় সাজ্জাদ হোসেন মিলন (৩৩) ও ধর্ষণে সহায়তা করায় আবিদা সুলতানা লাকিকে গ্রেপ্তার করে বোদা থানা পুলিশ। পরদিন তাদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে। পুলিশ তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে ৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছে।

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status