পুলিশ ও জনতার সামনে যুবকের আত্মহত্যা

বিজ্ঞাপন

বগুড়ায় টমাস (৩৮) নামে এক যুবক নির্মাণাধীন ভবনের পাঁচ তলা থেকে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। শতজনতা ও পুলিশ শত চেষ্টা করেও তাকে বাঁচাতে পারেননি।

সোমবার (০৩ মে) বিকেল ৪টার দিকে শহরের বড়গোলা ভান্ডারী লেন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত টমাস বগুড়া পৌর এলাকার চক সুত্রাপুর নামাজগড় লেন এলাকার মৃত হাফিজুর রহমানের ছেলে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, বিকেল ৪টার দিকে শহরের বড়গোলায় লোকজন দেখতে পান এক যুবক নির্মাণাধীন বহুতল ভবনের সঙ্গে লাগানো বাঁশের সাটারিং ধরে ছয় তলা থেকে আত্মহত্যার চেষ্টা করছেন। বিষয়টি ৯৯৯ নম্বরে কল করে জানান স্থানীয় এক ব্যক্তি। পরে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন। তারা ওই যুবককে বুঝিয়ে নিচে নামানোর চেষ্টা করেন।

এ সময় টমাস ছয় তলা থেকে পাঁচ তলায় বাঁশ বেয়ে নেমে আসেন। এরপর তাকে বাঁচাতে নানা ধরণের কথা বলেন ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ সদস্যরা। পাঁচ তলায় এসে তিনি হাত ছেড়ে দিলে নিচে পড়ে যান। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা তাকে দ্রুত মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বগুড়া সদর থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) জহুরুল ইসলাম বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হই। এরপর টমাসকে বাঁচানোর চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তিনি পাঁচ তলা থেকে হাত ছেড়ে দিয়ে নিচে পড়ে যান। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তবে কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন তা জানা যায়নি।

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status