বিয়ে ভাঙতে বাবা বললেন, ‘মেয়ে করোনা পজিটিভ’

বিজ্ঞাপন

নিজের পছন্দে বিয়ে করতে চেয়েছিল মেয়ে। তা একেবারে অপছন্দ ছিলো বাবার। কিন্তু মেয়ে তো সাবালিকা, বিয়ে আটকাবেন কী করে? তাই মেয়ের রেজেস্ট্রি আটকাতে অদ্ভুত এক ফন্দি আঁটলেন বাবা। ১০০ শতাংশ কাজও করল তার সেই ফন্দি। শেষ পর্যন্ত করোনার দোহাই দিয়ে মেয়ের বিয়ে সাময়িকভাবে রুখে দিলেন ভারতের মধ্যপ্রদেশের ওই মেয়ের বাবা।

গত সোমবার এক ১৯ বছরের যুবতী তার প্রেমিক ও বান্ধবীদের নিয়ে জেলা আদালতে হাজির হয়েছিলেন। ম্যারেজ রেজিস্ট্রার বীরেন্দ্র ভার্মার কাছে প্রয়োজনীয় নথি জমা করছিলেন। সেই সময় আদালত চত্বরে হাজির হন মেয়েটির বাবা। তিনি ম্যারেজ রেজিস্ট্ররকে জানান, আমার মেয়েটি করোনা আক্রান্ত। ব্যস আর যায় কোথায়! সঙ্গে সঙ্গে মেয়েটিকে বাড়ি পাঠিয়ে দেন ওই বীরেন্দ্র ভার্মা। মজার বিষয় হল মেয়েটির করোনা পরীক্ষা হলেও তার রিপোর্ট এখনও আসেনি। আগামী ১৪ দিন তাকে হোম আইসোলেশনে রাখা রয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় স্বাস্থ্য দপ্তর।

ঘটনা প্রসঙ্গে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে বীরেন্দ্র ভার্মা জানান, ‘দুজনেই সাবালক-সাবালিকা। তারা বিয়ে করবে বলে আমার কাছে এসেছিলেন। কিন্তু মেয়েটির পরিবারকে দেখে মনে হল তারা বিয়েটিকে সমর্থন করে না। তাই হয়তো মেয়েটিকে করোনা আক্রান্ত প্রমাণিত করে বিয়েটা কিছুদিনের জন্য পিছিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন।

তিনি আরও জানান, ‘মেয়েটি করোনা আক্রান্ত শোনার পর আমাদের আর কিছু করার ছিল না। তাকে বাড়ি ফিরে যেতে বলি। আদালতের কর্মীরাও বাড়ি ফিরে যান।

সূত্র : সংবাদ প্রতিদিন।

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status