ভারতে বেড়েই চলেছে করোনার সংক্রমণ

বিজ্ঞাপন

ভারতে যে হারে প্রতিদিন করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছে তা আমেরিকার পরেই। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে আরও অর্ধলক্ষাধিক মানুষের দেহে ভাইরাইসটি চিহ্নিত হয়েছে। এতে করে আক্রান্তের সংখ্যা সাড়ে ১৮ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। মৃত্যু হয়েছে ৩৮ হাজার মানুষের। তবে পূ্র্বের তুলনায় সুস্থতা বেড়েছে বলে দাবি করেছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

দেশটির কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত ওয়াল্ডোমিটার আজ সোমবার বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টায় বলেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৩ হাজার ৩৭৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আগের দিন এ সংখ্যা ছিল ৫৪ হাজার ৭৩৫। দেশটিতে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে ১৮ লাখ ৪ হাজার ৭০২ জনে দাঁড়িয়েছে। যার ষাট শতাংশই তিন রাজ্যের (মহারাষ্ট্র, দিল্লি ও তামিলনাড়ু)।

অন্যদিকে গত একদিনে প্রাণহানি ঘটেছে ৭৯৭ জনের। যা আগের দিন ছিল ৮৫৩ জনের। দেশটিতে করোনায় মোট প্রাণ হারিয়েছেন ৩৮ হাজার ১৬১ জন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১ কোটি ৯১ লাখের বেশি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

দক্ষিণ এশিয়ার দেশটিতে সর্বাধিক সংক্রমণ ছড়িয়েছে মহারাষ্ট্রে। তারপরেই তামিলনাড়ু, দিল্লি, গুজরাট, উত্তরপ্রদেশ, কর্নাটক এবং তেলেঙ্গানা। এদিকে, বিশ্ব তালিকায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ব্রাজিলের পরে বিশ্বের তৃতীয় সর্বোচ্চ করোনাক্রান্ত দেশ হলো ভারত। এদিকে মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখ ৩৬ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। মৃত্যু হয়েছে ১৫ হাজার মানুষের।

রাজধানী দিল্লিতে করোনার থাবায় প্রাণ গেছে ৩ হাজার ৯৬৩ জনের। আর ভুক্তভোগীর সংখ্যা বেড়ে ১ লাখ ৩৬ হাজার ৭১৬ জনে দাঁড়িয়েছে। বর্তমানে সেখানে কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসতে শুরু করেছে করোনার দাপট। তামিলনাড়ুতে এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৫১ হাজার ৭৩৮ জনের শরীরে ভাইরাসটির সংক্রমণ পাওয়া গেছে। যেখানে প্রাণহানি ঘটেছে ৩ হাজার ৯৩৫ জনের।

সংক্রমণ ঠেকাতে ভারতে প্রথমদিকে সামাজিক দূরত্বের উপর জোর দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু এখন লকডাউনের কড়াকড়ি নেই। অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড শুরু হওয়ায় বাজার-হাট, গণপরিবহনে বেড়েছে লোকের ভিড়। বেড়েছে একে অপরের সংস্পর্শে আসার সম্ভাবনাও। তাই, প্রতিদিনই আশঙ্কাজনকহারে বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা।

এদিকে এখন পর্যন্ত করোনা মুক্ত হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন ১১ লাখ ৮৭ হাজার ২২৮ জন ভুক্তভোগী।

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status