মহেশখালীতে আবারও ঘন ঘন লোডশেডিং, অতিষ্ঠ জনজীবন

বিজ্ঞাপন

মহেশখালীতে গত কয়েকমাস ধরে বিদ্যুৎ সরবরাহ ছিলো প্রশংসনীয়। কিন্তু কয়েক সপ্তাহ ধরে কালারমারছড়া থেকে উত্তর নলবিলা পল্লী বিদ্যুতের সংযোগ লাইনে লোডশেডিং এ অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে মানুষের জনজীবন।

এই সংযোগ লাইনের পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহকরা জানান, করোনা ভাইরাসের কারণে অনেক চাকুরীজীবি কে বাড়ীতে বসে অনলাইনের মাধ্যমে অফিস করতে হচ্ছে। অনেকের আবার করতে হচ্ছে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন ক্লাস। কিন্তু কালারমারছড়া থেকে উত্তর নলবিলার হয়ে যে তেত্রিশ হাজার ভোল্টের লাইন রয়েছে সে সংযোগ লাইনে ২৪ ঘন্টায় পুরো ৭ ঘন্টা বিদ্যুৎ থাকেনা।

অতিরিক্ত লোডশেডিং এ গ্রাহকগণ কেরুনতলী পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে অভিযোগ জানিয়ে ফোন করলে তারা বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে এই লোডশেডিং এর কোনো সুরাহা করেনি বলে অভিযোগ করেছেন উত্তর নলবিলা গ্রামের পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহক মাস্টার জেমসেন বড়ুয়া।

তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে অনেক অফিস আদালত বন্ধ। এই সময়েও মহেশখালীর উত্তরাংশে এই লোডশেডিং চরম দুঃখ জনক। আমি নিজে কয়েকবার মহেশখালী পল্লী বিদ্যুতের জোনাল অফিসের জিএম এর কাছে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে এই লোডশেডিং এর বিষয়ে জানালেও তিনি কোনো ধরণের পদক্ষেপ নেয়নি।

ভুক্তভোগী গ্রাহক মনির হোসেন জানান, করোনা পরিস্থিতিতে অনলাইনের মাধ্যমে তাঁকে অফিস পরিচালনা করতে হচ্ছে কিন্তু এই লোডশেডিং এর কারণে তিনি মোবাইক কিংবা ল্যাপটপে চার্জ দিতে পারছেন না অফিস করবেন কি করে। বিশ্ববিদ্যালয়

শিক্ষার্থী তৌহিদুল ইসলাম বলেন, করোনার কারণে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ক্লাস কার্যক্রম সরকারি নির্দেশনায় বন্ধ রয়েছে। কিন্তু সেমিস্টার গ্যাপ বিবেচনা করে অনলাইনের মাধ্যমে আমাদের কে ক্লাস করতে হচ্ছে। বিদ্যুৎ এর যে লোডশেডিং এতে করে অনলাইনে ক্লাস করতে চরম বিড়ম্বনা পোহাতে হচ্ছে শিক্ষার্থীদের।

এই বিষয়ে পল্লী বিদ্যুৎ মহেশখালী শাখার জোনাল অফিসের জেনারেল ম্যানেজার দিপন চৌধুরীর কাছে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কালারমারছড়া থেকে উত্তর নলবিলা পর্যন্ত যে সংযোগ লাইনটি রয়েছে সে সংযোগ লাইনে লাইন উন্নীতকরণ সংস্কার কাজ চলছে। যে সমস্ত খুঁটি বিপদজনক তা সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে এবং নতুন খুঁটি স্থাপন করা হচ্ছে। এবং এই তেত্রিশ হাজার ভোল্টের লাইনের একটি সংযোগ কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্পে দেওয়া হয়েছে।

তাই আগামী এক সপ্তাহ পর্যন্ত কালারমারছড়া থেকে উত্তর নলবিলার এই লাইনে বিদ্যুৎ সরবরাহে একটু বিড়ম্বনা হতে পারে। সকাল ৯ টাঃ থেকে দুপুর ২ টাঃ পর্যন্ত লোডশেডিং হতে পারে। আগামী  এক সপ্তাহের মধ্যে এই সংষ্কার কাজ শেষ হলে পূর্বের ন্যায় নিয়মিত বিদ্যুৎ সরবরাহ সচল হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।


সংবাদ২৪/মহেশখালী/কাব্য/এসডি

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status