মাদ্রাসা শিক্ষা নিয়ে সিনেমা নির্মাণের জন্য পরিচালককে হুমকি

বিজ্ঞাপন

মাদরাসা পড়ুয়া এক কিশোরের শৈশব আর স্বপ্ন নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র। যে গল্পে অন্যান্য ঘটনার পাশাপাশি উঠে এসেছে শিশু নির্যাতনের চিত্র। কিন্তু মাদরাসা শিক্ষা নিয়ে চলচ্চিত্র নির্মাণ করায় একের পর এক হত্যার হুমকি পাচ্ছেন পরিচালক শাহাদত রাসেল।

গত ১০ জুলাই ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে চলচ্চিত্রটি। তবে এর আগে এটি ঘুরে এসেছে বিশ্বের ১৭টি দেশ। আর জয় করেছে চারটি আন্তর্জাতিক পুরস্কার।

জানা গেছে, ‘কালার অব চাইল্ডহুড’ নির্মাণের পর হুমকির পাশাপাশি নির্মাতার নামে ভূয়া আইডি তৈরি করে হিংসা ছড়ানো হচ্ছে। নির্মাতা রাসেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করলেও ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন হুমকিদাতারা। এদিকে পুলিশ সদর দপ্তর বলছে, অপরাধী যারাই হোক আইনের আওতায় আনা হবে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম- ইউটিউবে মুক্তির পর থেকেই পরিচালক শাহাদৎ রাসেলের কাছে আসতে থাকে হত্যার হুমকি। এখানেই শেষ নয়। তার নামে ভূয়া ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট খুলেও ছড়ানো হচ্ছে অপপ্রচার। নিরুপায় হয়ে ইউটিউব থেকে সরিয়ে নেয়া হয় সিনেমাটি।

জীবন বাঁচাতে থানায় সাধারণ ডায়েরিও করেছেন তিনি। তবুও থামেনি হুমকি। একটি সংঘবদ্ধ চক্র উদ্দেশ্যমূলকভাবে এ তৎপরতা চালাচ্ছে বলেও জানান তিনি। হুমকি দাতাদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানান এই পরিচালক।

এ বিষয়ে শর্টফিল্ম ফোরামের সাধারণ সম্পাদক জানান, এ ধরনের কাজ সংস্কৃতির উপর আঘাত।

এ বিষয়ে জানতে মোহাম্মদপুর থানায় গেলে থানার ওসি কথা বলতে রাজি হননি। তবে সাইবার পুলিশ বলছে, এ ঘটনায় সাইবার ক্রাইমে মামলা করা হলে তদন্ত করবেন তারা।

অপরদিকে পুলিশ সদর দফতর বলছে, অপরাধি যে বা যারাই হোক- তাদের আইনের আওতায় আনা হবে।

প্রসঙ্গত, ‘পৃথিবীতে যা কিছু সুন্দর সেসব কিছুই হালাল, যা কিছু অসুন্দর সেসব কিছুই হারাম’-এ স্লোগান নিয়ে নির্মিত হয় স্বল্পদৈর্ঘ্য ‘কালার অব চাইল্ডহুড’। শাহাদাত রাসেল’র চিত্রনাট্য ও পরিচালনায় নির্মিত ‘কালার অব চাইল্ডহুড’র কাহিনীতে মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থা ও একজন কিশোরের মনস্তাত্ত্বিক অবস্থানের দ্বৈত চরিত্র ফুটিয়ে তােলা হয়েছে।

এটি ‘বোহেমিয়ান ব্রাদার্স স্টুডিও’র অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করা হয়।

নির্মাতা বলেন, ‘দেশের বাহিরে পুরষ্কার জেতার পরেই দেশের অনেক দর্শক ফিল্মটি দেখার আগ্রহ প্রকাশ করেন। তবে কিছু টেকনিক্যাল কারণে এতো দিন ফিল্মটি বাংলাদেশে মুক্তি দেয়া সম্ভব হয়নি। পরে ফিল্মটিকে সবার সামনে তুলে ধরা হয়।

তিনি বলেন, ‘এই ফিল্মের সাবজেক্টটা কিছুটা সেনসেটিভ সাধারণত এই কনসেপ্টের উপর আমাদের দেশে কোন ফিল্ম নির্মিত হয় না। বিভিন্ন দেশে প্রদর্শনীতে বিদেশী দর্শকদের কাছে ফিল্মটি নিয়ে উচ্ছ্বাসিত প্রশংসা পেয়েছি।’

কালার অব চাইল্ডহুড ফিল্মটি আমেরিকা, ভারত ও বাংলাদেশ থেকে একাধিক পুরষ্কার অর্জন করেছে। বোহেমিয়ান ব্যাদার্স প্রযোজিত এই ফিল্মে অভিনয় করেছেন নাফিস আহমেদ, জয়িতা মহলানবিশ, মিঠা মামুন, আলিফসহ আরও অনেকেই।

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status