মারা গেলেন শান্তিতে নোবেলজয়ী জন হিউম

বিজ্ঞাপন

উত্তর আয়ারল্যান্ডের বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও শান্তিতে নোবেলজয়ী জন হিউম ৮৩ বছর বয়সে মারা গেছেন। বেশ কয়েক বছর ধরেই হিউম স্মৃতিভংশ রোগে ভুগছিলেন।

সোমবার (৩ আগস্ট) সকালে লন্ডনডেরি শহরের একটি নার্সিং হোমে মারা গেছেন বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

সাম্প্রতিক রাজনৈতিক ইতিহাসে আয়ারল্যান্ড এবং উত্তর আয়ারল্যান্ডে শান্তি স্থাপনে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিত্ব হিসাবে পরিচিত ছিলেন তিনি। তার মৃত্যুতে সব রাজনৈতিক নেতা শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন।

টনি ব্লেয়ার শোক প্রকাশ করে বলেছেন, হিউম ছিলেন একজন রাজনৈতিক মহারথী। তার চিন্তা ছিল সুদূরপ্রসারী। তিনি বিশ্বাস করতেন, ভবিষ্যৎ সময়টি অতীতের মতো একইরকম হবে না। নর্দার্ন আয়ারল্যান্ডে শান্তি প্রতিষ্ঠায় জন হিউমের অনবদ্য অবদানের জন্য তাকে শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করা হবে বলে জানান ব্লেয়ার।

বর্তমান আইরিশ প্রধানমন্ত্রী জন হিউমকে একজন ‘মহান বীর এবং সত্যিকারের শান্তিস্থাপক’ বলে তার প্রশংসা করেছেন।

ওদিকে, নর্দার্ন আয়াল্যান্ডের ফার্স্ট মিনিস্টারও হিউমের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন এবং তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

জন হিউম ছিলেন সোস্যাল ডেমেক্রেটিক অ্যান্ড লেবার পার্টির (এসডিএলপি) প্রতিষ্ঠাতাদের একজন। ১৯৭০ সালে এসডিএলপি প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৭৯ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তিনি এসডিএলপি পার্টির নেতৃত্ব দিয়েছিলেন।

১৯৯৮ সালে উত্তর আয়ারল্যান্ডের শান্তি রক্ষায় গুড ফ্রাইডে শান্তিচুক্তিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিলেন জন হিউম। ওই বছরই তিনি নোবেল শান্তি পুরস্কার পান। উলস্টার ইউনিয়নবাদী পার্টি নেতা ডেভিড ট্রিম্বলের সাথে যৌথভাবে এই পুরস্কার পেয়েছিলেন হিউম।

যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ারের আমলে গুড ফ্রাইডে শান্তিচুক্তি হয়েছিল।

-বিবিসি 

#সংবাদ২৪/এমকে

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status