মেয়েকে অশ্লীল কটুক্তির প্রতিবাদ করায় মা ও খালাকে কুপিয়ে রক্তাক্ত

বিজ্ঞাপন

ঝালকাঠির রাজাপুর উপজেলার শুক্তাগড় এলাকায় মেয়েকে অশ্লীল কটুক্তি করার প্রতিবাদ করায় মা ও খালাকে কুপিয়ে রক্তাক্ত যখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার (২৫জুন) রাত ৮ টার দিকে আহতদের নিজ বসত বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় রাজাপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

আহতরা রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। আহতরা হলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ মনিরউজ্জামানের গাড়ীর ড্রাইভার শুক্তাগড় এলাকার শহিদুল ইসলামের স্ত্রী নয়ন বেগম (৩৫) ও নয়ন বেগমের বড় বোন কাজল বেগম (৪০)।

আহত নয়ন বেগমের স্বামী শহিদুল ইসলাম জানান, প্রতিবেশি মৃত. আ: হকের ছেলে আলমগীর হোসেন আমার প্রাপ্ত বয়স্ক মেয়েকে অশ্লীল ভাষায় খারাপ কথা বললে আমার স্ত্রী নয়ন বেগম এর প্রতিবাদ করে।

অশ্লীল কুটক্তিকারী আলমগীর ও তার স্ত্রী এতে আমার স্ত্রী নয়ন বেগমের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে কুপিয়ে রক্তাক্ত আহত করে এসময় স্ত্রীর বড় বোন কাজল বেগম নয়নকে বাচাতে আসলে তাকেও কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। তৎক্ষনাৎ স্থানীয়রা উদ্ধার করে আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসার জন্য নিয়ে আসেন।

রাজাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, রাত সাড়ে ৮ টার দিকে মাথায় রক্তাক্ত মারাত্মক জখম অবস্থায় মধ্যে বয়সী দুই নারী চিকিৎসা নিতে আসলে উভয়কে চিকিৎসা দিয়ে স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি রাখা হয়।

অভিযুক্ত আলমগীর হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি অভিযোগ অস্বিকার করে জানান, আমি তাদেরকে মারিনী বরং তারা আমাকে, আমার মেয়েকে ও আমার স্ত্রীকে মারধর করেছে।

এ বিষয়ে রাজাপুর থানা ওসি তদন্ত আবুল কালাম জানান,  অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।


সংবাদ২৪/ঝালকাঠি/আল-আমিন/এসডি

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status