যা বললেন ‘অপু ভাই’র বাবা

বিজ্ঞাপন

জনপ্রিয় ভিডিও অ্যাপ টিকটকের বিতর্কিত মুখ ‘অপু ভাই’কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (০৩ আগস্ট) সন্ধ্যায় রাজধানীর উত্তরা থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অপুর বিরুদ্ধে সড়ক অবরুদ্ধ করে বাদীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম, চুরি ও হুমকির অভিযোগ আনা হয়।

রাজধানীর উত্তরা পূর্ব থানায় এসেছিলেন ছেলের বিষয়ে খোঁজ নিতে অপুর বাবা শহীদুল ইসলাম। সেখানে সাংবাদিকদের কাছে তিনি অপুর বিষয়ে বলেন, ‘তার মেধা আছে, সে ভালো গান গাইতে পারে। যত্ন নিলে আরো ভালো করত। থানার ওসি সাহেবও বললেন সেই কথা। ওরে জামিন পাইলে আগে ওসি সাহেবের কাছে নিয়ে আসব। তিনি যে পরামর্শ দেবেন, সেটাই করব।’

শহীদুল ইসলাম সংবাদমাধ্যমকে আরো বলেন, ‘ওসি সাহেবের সঙ্গে আমার আলাপ হইছে। তারা ভালো রিপোর্ট দিছেন। ছেলেরে আসলে ঠিকমতো দেখাশোনা করি নাই, এই জন্য এই রকম হইছে। এখন আমি জজকোর্টে যাচ্ছি, ওর জামিন হলে ওর প্রতি খেয়াল নিবো।’

তিনি আরো বলেন, ‘অপু যে ঢাকায় ছিল সেটা তিনি জানতেন না। কারণ অপু সোনাইমুড়িতে নানাবাড়ি থাকত। অপুর মায়ের সঙ্গে তাঁর তালাক হয়ে গেছে ১৩ বছর আগে। সে ঘরে অপু (২০) ও অন্তর (১৬) নামে দুই সন্তান রয়েছে। পরে অপুর মা শহীদুল ইসলামকে তালাক দিলে তিনি ফের বিয়ে করেন। তবে সোনাইমুড়ির সোনাপুরে নানাবাড়িতে অপু ও অন্তরের জন্য খরচ পাঠাতেন শহীদুল ইসলাম।

শহীদুল ইসলামের মিটফোর্ডসহ ঢাকার বিভিন্ন স্থানে ব্যবসার ক্ষেত্র ছিল। এখন ব্যবসা বাদ দিয়ে নোয়াখালীর মাইজদীতে থাকেন।

পথচারীকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগে লাইকি তারকা ‘অপু ভাই’-কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল সোমবার সন্ধ্যার পর তাকে রাজধানীর উত্তরা থেকে আটক করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উত্তরা পূর্ব থানার ওসি (তদন্ত) আদিল হোসেন।

এর আগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিনদিনের রিমান্ড চেয়ে অপু ও তার সহযোগীদের আদালতে পাঠানো হয়। তবে রিমান্ড নামঞ্জুর করে আদালত কারাগারে পাঠিয়েছে অপুকে।

উত্তরা পশ্চিম থানা সূত্র জানায়, মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ‘অপু ও তার সহযোগীরা বেআইনিভাবে জনতাবদ্ধ হয়ে গতিরোধ করে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে মারপিট করে রক্তাক্ত ও গুরুতর জখমসহ চুরি, ভয়ভীতি ও হুমকির অপরাধ করেছে।’

মামলায় দণ্ডবিধি ১৪৩, ৩৪১, ৩২৩, ৩২৪, ৩২৫, ৩৫৯ ও ৩৭৯ ধারায় অপরাধ করার উল্লেখ করা হয়েছে। দণ্ডবিধির ধারা ১৪৩ বেআইনি সমাবেশ করার অপরাধে, ৩৪৩ অন্যায়ভাবে কাজে বাধা প্রদানের জন্য, ধারা ৩২৩ কোনো ব্যক্তিকে হাত দ্বারা বা ভোঁতা অস্ত্র দ্বারা আঘাত করায়, ধারা ৩২৫ কোনো ব্যক্তিকে হাত দ্বারা বা ভোঁতা অস্ত্র দ্বারা ‘গুরুতর’ আঘাত করার সাজা, ধারা ৩২৬ কোনো ব্যক্তিকে (শুধুমাত্র) ধারালো অস্ত্র দ্বারা গুরুতর আঘাত করা এবং ধারা ৩৭৯ ঘরের বাইরে বা খোলা জায়গা থেকে মালামাল চুরি করার অপরাধে মামলা দেয়া হয়েছে।

উত্তরা পূর্ব থানার এসআই আজিজুল তালুকদারকে মামলাটি তদন্ত করার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। এজাহারে অপুসহ তার বন্ধু রনি, মুরাদ, জমিরউদ্দিন, নাজমুল, শাহদাত হোসেন শাকিলসহ অজ্ঞাত ২০-২৫ জনকে আসামি করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status