লেবাননে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা

বিজ্ঞাপন

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ দুটি বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৭৮ জন মারা গেছেন। আহত হয়েছেন আরও চার হাজারেরও বেশি লোক। উদ্ধার কাজ অব্যাহত রয়েছে এখনো, তাই বাড়তে পারে হতাহতের এই সংখ্যা।

বিস্ফোরণে হতাহতদের প্রতি শোক ও শ্রদ্ধা জানাতে দেশটিতে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক পালনের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। অপরদিকে বিস্ফোরণের পর বিশ্ব নেতাদের অনেকেই এর নিন্দা জানালেও লেবাননের সাহায্যে এগিয়ে আসছে কাতার, ইরাক ও কুয়েত।

লেবাননের সংবাদ সংস্থা এনএনএ নিউজ এজেন্সি বলছে, বুধবার বৈরুতে ৫০০ শয্যাবিশিষ্ট দুটি ফিল্ড হাসপাতাল পাঠাবে কাতার।
ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সরকারি কর্মকর্তারা বলছেন, বিস্ফোরণের ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে। লেবাননের সুপ্রিম ডিফেন্স কাউন্সিল এরই মধ্যে জানিয়ে দিয়েছে, এ ঘটনার পেছনে দায়ীদের সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়া হবে।

এনএনএ-র আরেক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভয়াবহ এই সঙ্কটে সহায়তা করতে একটি ফিল্ড হাসপাতাল এবং তেল পাঠাবে ইরাক।

কাতারের আমির তামিম বিন হামাদ আল থানি এক টুইট বার্তায় জানিয়েছেন, তিনি লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল ওনের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন। লেবাননের পাশে থাকার এবং মেডিকেল সহায়তা দেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

তাছাড়া কুয়েতের ক্রাউন প্রিন্স শেখ নাওয়াফ আল-আহমাদ আল জাবের আল-সাবাহ লেবাননে জরুরি মেডিকেল সহায়তা পাঠাতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যার পরে ভয়াবহ এই বিস্ফোরণ ঘটে।

লেবাননের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আল জাজিরাকে বলেছেন, বন্দরে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট মজুদ করা ছিল। তা থেকে বিস্ফোরণ ঘটেছে।

লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব এই বিস্ফোরণকে জাতীয় দুর্যোগ ঘোষণা করেছেন।

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status