সম্পূর্ণ ব্যতিক্রমী হজ দেখবে বিশ্ব!

বিজ্ঞাপন

মাত্র ১০ হাজার মানুষের উপস্থিতিতে এবার সম্পূর্ণ ব্যতিক্রমী হজ দেখবে বিশ্ব। করোনার কারণে কঠোরভাবে পরিচ্ছন্নতা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর জোর দিচ্ছে সৌদি আরব।

হাজীদের প্রথম দলটি এরইমধ্যে মক্কায় পৌছেছেন। সেখানে নিজ নিজ হোটেল রুমে কোয়ারেন্টিনে আছেন তারা। করোনাকালে হাজীদের সুস্থতা এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিচ্ছে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

লটারির মাধ্যমে নির্বাচন করা হয়েছে হাজীদের। প্রাথমিকভাবে নির্বাচিতদের ঘরে ঘরে গিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন সৌদি কর্মকর্তারা। চূড়ান্তভাবে নির্বাচিত হওয়ার পর নিজ নিজ বাসায় ৭ দিন কোয়ারেন্টিনে থাকেন তারা। হাজীদের চলাচল পর্যবেক্ষণ করতে পরানো হয়েছে ইলিকট্রনিক ব্রেসলেট। মক্কায় যাওয়ার পর নির্ধারিত হোটেলে কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন তারা।

প্রতিদিন কমপক্ষে ১০ বার করে জীবানুমুক্ত করা হচ্ছে কাবাঘর এবং এর আশেপাশের স্থানগুলো। ১৮ হাজারেরও বেশি কর্মী এসব কাজে নিয়োজিত রয়েছেন। মক্কা, মিনা, মুজদালিফা, আরাফাত ময়দানে ২৪ ঘন্টা জীবানুমুক্ত করতে নিয়োগ দেয়া হয়েছে সাড়ে ১৩ হাজার পরিচ্ছন্ন কর্মীকে।

এছাড়া মক্কাজুড়ে ২৮টি সেবাকেন্দ্র খোলা হয়েছে যেখানে সারাক্ষণই নানা ধরণের সেবা পাবেন হাজীরা। এছাড়া সার্বক্ষণিকভাবে এম্বুলেন্স এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

সৌদি আরবে অবস্থানরত ২০ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে সুস্থ ব্যক্তিরা এবার হজ পালনের সুযোগ পেয়েছেন। মোট ১০ হাজার জনের ৭০ শতাংশই সৌদি আরব প্রবাসী, আর বাকি ৩০ শতাংশ দেশটির নাগরিক। হাজীদের সব খরচ দিচ্ছে সৌদি সরকার।

হজের দ্বিতীয় দিন আরাফাত ময়দানের খুতবা বাংলা, ইংরেজি, ফারসি, উর্দুসহ মোট ১০টি ভাষায় প্রচার করা হবে। জমজমের পানি বোতলে করে সরবরাহ করা হবে হাজীদের। করোনার কারণে ছোয়া যাবে না কাবাঘর, কালো পাথরে চুমু খাওয়াও এবার নিষিদ্ধ। নামাজ পড়ার জন্য আনতে হবে জায়নামাজ।

#সংবাদ২৪/এমকে

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status