সাহেদ একজন আদর্শ প্রতারক: র‍্যাব

বিজ্ঞাপন

রিজেন্ট হাসপাতাল ও রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমকে আদর্শ প্রতারক হিসেবে অভিহিত করেছে র‍্যাব। সাহেদ করিমের বিরুদ্ধে ‘হটলাইন’ ও ই-মেইলে প্রতারণার ১৪০ অভিযোগ জমা পড়েছে বলে জানায় র‍্যাব।

রোববার (১৯ জুলাই) দুপুরে র‌্যাব সদর দফতরে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ ।

তিনি বলেন, সাহেদ বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছে প্রায় ১০ কোটি টাকা। এছাড়া তার (শাহেদ) পরিচালিত প্রতিষ্ঠানগুলোয় কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন দিতেন না বলে অভিযোগ রয়েছে।

তিনি বলেন, ‘বিভিন্নজনের কাছ থেকে সাহেদ সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচ্ছি। তার পরিচালিত প্রতিষ্ঠানে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন দিতেন না। কীভাবে তারা বেতন পেতে আইনি পরামর্শ পাওয়া যায় এ ব্যাপারে র‌্যাবের সঙ্গে যোগাযোগ করছে।’

লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেন, সাহেদ করিমের বিরুদ্ধে র‌্যাবের ‘হটলাইন’ ও ই-মেইলে প্রতারণার ১৪০ অভিযোগ জমা পড়েছে। এর মধ্যে ১২০টি অভিযোগ হটলাইনে এবং বাকী ২০টি অভিযোগ ই-মেইলে প্রতারণার শিকার ব্যক্তিরা জানিয়েছেন। তিনি বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছে প্রায় ১০ কোটি টাকা।

র‌্যাবের তদন্তে এসব তথ্য বেরিয়ে এসেছে বলে জানান আশিক বিল্লাহ।

তিনি বলেন, গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হিসেবে যেভাবে নিজেকে পরিচয় করানোর দরকার তিনি সেভাবেই সমাজের সব স্তরের মানুষের কাছে নিজেকে গুরুত্বপূর্ণ বলে পরিচয় দিতেন।

সাহেদ করিমকে ‘আইডল’ প্রতারক আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, ‘একজন প্রতারকের যে বৈশিষ্ট্য থাকা উচিত, আমরা তদন্তে জেনেছি সাহেদ করিমের মধ্যে সবগুলোই ছিল। যার ফলে খুব সহজে প্রতারণা করে মানুষকে বিভিন্নভাবে প্রলুব্ধ করতেন। মানুষ তার গুরুত্বপূর্ণ আবহ দেখে বিশ্বাস করত।’

খবর: বাসস।


সংবাদ২৪/এসডি

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status