হাকালুকি হাওরে ৬০টি পানকৌড়ির বাচ্চা উদ্ধার, পরে অবমুক্ত 

বিজ্ঞাপন

মৌলভীবাজারের বড়লেখায় অভিযান চালিয়ে ৬০টি পানকৌড়ির বাচ্চা উদ্ধার করেছে বন বিভাগ। বুধবার (২৯ জুলাই) রাতে বড়লেখা উপজেলার তালিমপুর ইউনিয়নের হাকালুকি হাওরপাড়ের কাননগোবাজার এলাকায় নৌকা থেকে এগুলো উদ্ধার করা হয়।

এসময় নৌকায় পাখি রেখে শিকারিরা পালিয়ে যায়। রাতে উদ্ধার করা পাখিগুলোকে হাকালুকি হাওরপাড়ের হাল্লা গ্রামের পাখিবাড়িতে অবমুক্ত করা হয়েছে।

বনবিভাগ সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দিনের যে কোনো একসময় হাকালুকি হাওরপাড়ে অবস্থিত পাখির অভয়াশ্রম ‘হাল্লা পাখিবাড়ি থেকে ফাঁদ পেতে বেশ কিছু পানকৌড়ির বাচ্চা ধরে শিকারিরা। পরে পাখিগুলো বিক্রির জন্য স্থানীয় কাননগোবাজারে নৌকায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। স্থানীয়রা বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনকে জানান।

এরপর বিকেল ৫টার দিকে বন বিভাগের হাকালুকি বিটের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা (জুনিয়র ওয়াইল্ডলাইফ স্কাউট) তপন চন্দ্র দেবনাথ কাননগোবাজার এলাকায় অভিযান চালান। নৌকায় করে বন বিভাগের লোকজনের আসা দেখে শিকারিরা নৌকা ও পানকৌড়ির বাচ্চাগুলো রেখে পালিয়ে যায়।

পরে বন বিভাগের লোকজন স্থানীয়দের উপস্থিতিতে পানকৌড়ির বাচ্চাগুলো উদ্ধার ও শিকারিদের নৌকা জব্দ করেন। উদ্ধারের পর পাখিগুলো বড়লেখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে পাখি বাড়ির মালিক কাছে অবমুক্তের জন্য পানকৌড়ির বাচ্চাগুলো হস্তান্তর করা হয়।

এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামীম আল ইমরান, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান তাজ উদ্দিন, বন বিভাগের বড়লেখা রেঞ্জ কর্মকর্তা শেখর রঞ্জন দাস, বন বিভাগের হাকালুকি বিটের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তা তপন চন্দ্র দেবনাথ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে পাখিবাড়িতে পাখিগুলো অবমুক্ত করা হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামীম আল ইমরান বলেন,আইন অনুযায়ী যে কোনো পাখি ধরা, শিকার, এবং আবদ্ধ রাখা দণ্ডনীয় অপরাধ। শিকারিরা পাখি বাড়ি থেকে পানকৌড়ির বাচ্চাগুলো ধরে নিয়ে যাচ্ছিল। স্থানীয়ভাবে খবর পাই। তাৎক্ষণিক হাকালুকি বিটের কর্মকর্তাকে জানালে তিনি এগুলো উদ্ধারে অভিযান চালান। হাওর এলাকা হওয়ায় শিকারিরা অভিযান দলকে দেখে নৌকা ও পাখি রেখে পালিয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, পাখিবাড়ির মালিকের কাছে এগুলোকে হস্তান্তর করা হয়। রাতেই সেখানে অবমুক্ত করা হয়েছে। স্থানীয়ভাবে শিকারিদের তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।


সংবাদ২৪/সাজু/এসডি

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status