২ দিন আগেই পরিবারের চার জনকে জবাই করে ঘরে ফেলে রাখা হয়

বিজ্ঞাপন

টাঙ্গাইলের মধুপুরে একই পরিবারের ৪ জনকে হত্যার ঘটনায় তদন্ত করছে পুলিশ। পুলিশের ধারণা, দুইদিন আগে জবাই করে হত্যা করা হয় তাদেরকে।

মধুপুর পৌরসভার মাষ্টারপাড়া এলাকার ব‌্যবসায়ী ওসমান গনি (৪০), তার স্ত্রী কাজিরন বেগম (৩৫) পুত্র তাজুল (১৭) ও মেয়ে সাদিয়া (৮) হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে।

শুক্রবার (১৭ জুলাই) সকালে পুলিশ খবর পেয়ে তাদের চারজনের মরদেহ উদ্ধার করে। জেলার মধুপুর পৌরসভার মাষ্টারপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

মধুপুর থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, খুন হওয়া ওসমান মধুপুরে রিকশাভ‌্যান বেচা-কেনার ব্যবসা করতেন। তার এক ছেলে দুই মেয়ে। বড় মেয়ে সোনিয়ার তিন বছর আগে বিয়ে হয়ে গেছে। তার ছেলে তাজুল ভাইঘাট কলেজে ও মেয়ে সাদিয়া স্থানীয় একটি মাদ্রাসায় তৃতীয় শ্রেণীতে পড়তো। ঘটনার আগে দুইদিন ধরে বাসা তালাবদ্ধ ছিল।

ওসমানের বড় মেয়ে সোনিয়া ফোন করে তার মামী সালেহা বেগমকে তার বাবার বাড়িতে যেতে বলেন। পরে সালেহা বেগম বাসায় গিয়ে ঘর তালাবদ্ধ পায়। পরে জানালা দিয়ে দেখতে পান রুমে খাটের উপর ওসমান গনির গলাকাটা মরদেহ পড়ে রয়েছে। পরে থানায় ফোন দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। পরে পাশের রুমে একই খাটে মা ও মেয়ের জবাই করা মরদেহ ও অপর কক্ষে খাটের নিচে তাজুলের জবাই করা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

মধুপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তারিক কামাল জানান, সবাইকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, দুইদিন আগেই তাদের হত‌্যা করা হয়েছে। পুলিশ তদন্ত করছে। এখনই কিছু বলা যাচ্ছে। পিবিআই ও সিআইডি পুলিশ ঘটনাস্থলে রয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

আরও পড়ুন
Loading...
DMCA.com Protection Status